ঢাকা শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সবার জন্য নিরাপদ ডিজিটাল ভবিষ্যৎ গড়ে তুলতে হবে : স্পিকার

কলমের কণ্ঠস্বর ডেস্ক
প্রকাশিত: ৬:৪০ পি.এম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Link Copied!

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ : জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এই ডিজিটাল বাংলাদেশের সম্পূর্ণ সুবিধা পেতে হলে নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে আসতে হবে। সবার জন্য নিরাপদ ডিজিটাল ভবিষ্যৎ গড়ে তুলতে হবে।
তিনি আজ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কেবিনেট কক্ষে পার্লামেন্টারিয়ান ককাস অন ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স, ডিজিটাল ইকোনমি ও মিডিয়া ডেভেলপমেন্টের উদ্যোগে ইউএনডিপি ও বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ফোরাম আয়োজিত ‘গ্লোবাল ডিজিটাল কমপ্যাক্ট অ্যান্ড সামিট অফ দ্য ফিউচার ২০২৪’ শীর্ষক পরামর্শ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন।
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ফোরামের সেক্রেটারি জেনারেল আব্দুল হক এবং বাংলাদেশ এনজিওস নেটওয়ার্ক ফর রেডিও এন্ড কমিউনিকেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচ এম বজলুর রহমান মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইউএনডিপি’র আবাসিক প্রতিনিধি স্টেফান লিলার ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আব্দুস সালাম। এছাড়াও বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার, নিরাপদ সড়ক চাই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চলচ্চিত্রাভিনেতা ইলিয়াস কাঞ্চন, ই-ক্যাব এর সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল ওয়াহেদ তমাল এবং চলচ্চিত্রাভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ বক্তব্য রাখেন।
ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, জাতিসংঘের ৭৫তম অধিবেশনে মহাসচিব অ্যান্টনিও গুটারেস ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য জলবায়ু সমস্যা এবং ডিজিটাল ট্রান্সফর্মেশনের কথা বলেছেন। এ প্রেক্ষিতে গ্লোবাল ডিজিটাল কমপ্যাক্ট গড়ার লক্ষ্যে আগামী ২০২৪ সালে ওয়ার্ল্ড সামিট অনুষ্ঠিত হবে।
তিনি বলেন, ওয়ার্ল্ড সামিট উপলক্ষে পার্লামেন্টারিয়ান ককাস অন ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ডিজিটাল ইকোনমি, বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ফোরামসহ বিভিন্ন সংগঠন ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছে।
স্পিকার বলেন, সংসদ সদস্যসহ এনজিও, নাগরিক সমাজ, বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে এই সভাতে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে।
তিনি বলেন, ডিজিটাল মিডিয়াতে নারী, শিশুসহ বিভিন্ন বিশিষ্টজনের নিরাপত্তা বিঘিœত হচ্ছে। তাই ডিজিটাল নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে সংসদীয় ককাসে সংসদ সদস্যসহ বিশেষজ্ঞদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। সংসদীয় ককাস আন্তর্জাতিক পর্যায়ের আলাপ আলোচনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।
স্পিকার বলেন, শিশুদের মানসিক ও শারীরিক বিকাশ নিশ্চিত করতে খেলার মাঠ, পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়াতে সিটি কর্পোরেশনকে উদ্যোগ নিতে হবে। শিশুদের ইন্টারঅ্যাকটিভ কার্যক্রমে যুক্ত করার মাধ্যমে ডিজিটাল গ্যাজেটের প্রতি আসক্তি কমাতে হবে।
এসময় সভায় সংসদ সদস্যসহ আমন্ত্রিত সকলে কার্যকর আলোচনা ও মতবিনিময় করেন। স্পিকার সময়োপযোগী এ সভা আয়োজন করার জন্য ইউএনডিপিসহ আয়োজকদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।
এ বৈঠকে বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র. আ. ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, অসীম কুমার উকিল, পঙ্কজ দেবনাথ, ফখরুল ইমাম, আহসানুল ইসলাম টিটু, এম এ মতিন, গোলাম কিবরিয়া টিপু, আরমা দত্ত, অপরাজিতা হক, মমতা হেনা লাভলী, শিরিন আক্তার, বাসন্তী চাকমা, সৈয়দা জাকিয়া নূর, আদিবা আনজুম মিতা, আফরোজা হক, নাহিম রাজ্জাকসহ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, এনজিও ফাউন্ডেশনের শীর্ষস্থানীয় প্রতিনিধিসহ আমন্ত্রিত অতিথি, দেশবরেণ্য সাংবাদিক এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।