ঢাকা শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়

রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী: ছয় বছর হয়ে গেল, আর কত?

অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১:৩৫ পি.এম, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Link Copied!

ভয়েস অব আমেরিকার সঙ্গে কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: ভিডিও থেকে নেয়া

রোহিঙ্গা ইস্যুতে হতাশা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মানবিক কারণেই রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়া হয়েছে এবং তাদের প্রতি সব রকম দায়িত্ব পালন করা হচ্ছে। কিন্তু সময় এবং সাধ্যের বাইরে চলে যাওয়ার কারণে এখন রোহিঙ্গাদের যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেয়া উচিত। তার প্রশ্ন, দেখতে দেখতে তো ছয় বছর হয়ে গেল, আর কত?

 

মার্কিন গণমাধ্যম ভয়েস অব আমেরিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের বিষয়টির অগ্রগতি প্রশ্নে এসব কথা বলেন তিনি। শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) এ সাক্ষাৎকার প্রচার করা হয়।

 

রোহিঙ্গারা বসবাস করছে ক্যাম্পে। রোহিঙ্গা শিশুরা সেখানেই জন্ম নিচ্ছে, বড় হচ্ছে। অনেকে বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে। এভাবে শিশুরা ক্যাম্পে জীবন ধারণ করে সুস্থভাবে বড় হতে পারছে না বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তাই যত তাড়াতাড়ি তারা দেশে ফিরতে পারবে ততোই তাদের জন্য মঙ্গল হবে বলে মনে করেন তিনি।

প্রতিবেশী হিসেবে মিয়ানমারের সঙ্গে আলোচনা চলমান হলেও কোনো ফলাফল পাওয়া যাচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রী বলেন,
আমি আর্ন্তজাতিকভাবে সবাইকে বলেছি যে অন্তত একটি ব্যবস্থা নিন যেন তারা নিজের দেশে ফিরে যেতে পারে। জাতিসংঘ কিংবা অন্যান্য এনজিও যারা এখন সহযোগিতা করছে তারা তো সেটা ওখানেও দিতে পারে। আমাদের যেহেতু প্রতিবেশী, তাদের সঙ্গে একটা আলোচনা করে যাচ্ছি। তাদের আমরা বুঝানোর চেষ্টা করছি যে আপনাদের নাগরিক আপনারা ফেরত নিয়ে যান। এ পর্যন্ত চলছে তো চলছেই। কিন্তু আর কত। প্রায় ছয় বছর হয়ে গেল। এভাবে তো জীবনে সুস্থতা থাকে না।

তিনি বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি আমাদের সাধ্যমতো। আন্তর্জাতিক সাহায্য কমে যাচ্ছে, যেটা আরও বেশি দুর্ভাগ্যের বিষয়। তবুও যেহতু আমরা আশ্রয় দিয়েছি আমাদের দায়িত্ব আমরা পালন করে যাচ্ছি। কিন্তু আমি চাই এটা আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো মিলে একটু চেষ্টা করুক যেন রোহিঙ্গারা নিজের দেশে ফিরতে পারে, ভালোভাবে জীবনযাপন করতে পারে, মানুষের মতো জীবনযাপন করতে পারে সেটাই আমরা চাই।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন,
দুর্ভাগ্যের বিষয় হলো যে কোভিড- ১৯ বা রাশিয়া- ইউক্রেন যুদ্ধের পর থেকে রোহিঙ্গাদের জন্য যে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা ছিল, সেটা অনেকটাই কমে গেছে। এখন এই বোঝাটা পড়ে যাচ্ছে একা আমাদের ওপর।

তাই প্রধানমন্ত্রী সব আন্তর্জাতিক সংস্থাকে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে অন্তত চেষ্টা করার আহ্বান জানিয়েছেন, যেন তারা স্বাভাবিক মানুষের মতো জীবনযাপন করতে পারেন।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে নিরাপত্তা সংকট নিরসনে কেমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে- এমন প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন,
আমরা সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি এবং সাধ্যমতো চেষ্টা করছি। প্রত্যেকটি বাহিনী সেখানে সক্রিয় থেকে কাজ করছে। তারপরও তো বিশাল ক্যাম্প, কখন কোথায় কী ঘটনা ঘটে যায় তা নজরদারিতে আনা কষ্ট। সেখানে ১১ লাখ মানুষ আছে সেটা মাথায় রাখতে হবে।

১৩ দিনের যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে বাংলাদেশ সময় শনিবার সকালে লন্ডনের পথে রওনা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।