ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়

টানা চতুর্থবারের মত সরকার গঠন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ

সময়ের বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত: ৬:৫০ পি.এম, ৭ জানুয়ারি ২০২৪
Link Copied!

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একক সংখাগরিষ্ঠতায় টানা চতুর্থবারের মত সরকার গঠন করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট শেষ হয় বিকেল ৪টায়। এরপর নির্ধারিত বিরতি শেষে শুরু হয়েছে গণনা। ইতোমধ্যে ১৪০টি আসনে জয়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থীরা।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, নৌকার মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতারাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। দেশের নির্বাচনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এমন ঘটনা ঘটল। সর্বশেষ ঘোষিত ফলাফলে আওয়ামী লীগ রোববার দিবাগত রাত পৌনে ১২টা পর্যন্ত ১৪০ আসনে জয় পেয়েছে। এছাড়া, জাতীয় পার্টি ৭ ও স্বতন্ত্র থেকে ৩৯ জন প্রার্থী জয় পেয়েছেন।

এ সংখ্যাগরিষ্ঠতার মধ্য দিয়ে চতুর্থবারের মতো ক্ষমতায় বসতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসে দলটি। এরপর থেকে একটানা ক্ষমতায় রয়েছে।

আরও পড়ুন: দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের সারাদেশের সব খবর জানতে ক্লিক করুন

বাংলাদেশের সংবিধান অনুযায়ী- ৩০০ আসনের জাতীয় সংসদে কোনো দল যদি ১৫১ আসনে বিজয়ী হয় তাহলে তারা সরকার গঠনের যোগ্যতা অর্জন করে। সেই হিসেবে আওয়ামী লীগ ইতোমধ্যে আগামী সরকার গঠনের যোগ্যতা অর্জন করেছে। এ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতার মধ্যদিয়ে টানা চতুর্থবারের মতো আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করতে যাচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, এবারো শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থবারের মতো মন্ত্রীসভা গঠন করা হবে।

এদিকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর নেতাকর্মীদের বিজয় মিছিল না করার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া অন্য প্রার্থী ও তার কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে সহিংসতা বা আত্মকলহে লিপ্ত না হওয়ার জন্য সাংগঠনিক নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। রোববার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় দলটির দপ্তর সেল সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এছাড়া প্রায় একই সময়ে তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই নির্দেশনার কথা জানান দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, সরকারপ্রধান হয়েও স্বাধীন ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে গ্রহণযোগ্য ভোট করা যায়। ইতোমধ্যে শেখ হাসিনা তা প্রমাণ করেছেন। সারাদিন সবাই সেটা প্রত্যক্ষ করেছেন। সর্বাত্মক সহযোগিতা, ফ্যাসিলিটেড, কো-অপারেশন দিয়ে তিনি অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সেজন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

কাদের বলেন, এখন পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী; অধিকাংশ আসনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। অনেক বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এজন্য সবার কাছে কৃতজ্ঞ আমিরা।

তিনি আরও বলেন, অপপ্রচার চালিয়ে আন্তর্জাতিক এবং বাংলাদেশের বন্ধুদের বিভ্রান্ত করতে চেয়েছিল একটি মহল। তারা নির্বাচন বানচাল করতে চেয়েছিল। কিন্তু তাদের সব প্রচেষ্টা নস্যাৎ হয়েছে। বিদেশি পর্যবেক্ষক ও সাংবাদিকরা নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করেছেন। তারা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন।