ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ১২ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়

সাংবাদিক বাদল ও রাজিবকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিলেন ওসি

ঝালকাঠি প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ১০:৩১ এ.এম, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Link Copied!

সাংবাদিককে তথ্য দিতে অপরাগতা প্রকাশ ও পরে ঐ সাংবাদিককে মামলা দিয়ে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছে ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: নাসির উদ্দিন সরকার। দৈনিক স্বাধীন সংবাদ ও এশিয়ান টেলিভিশনের প্রতিনিধি মো:রাজিব তালুকদারের সাথে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটির প্রতিবাদ করতে গিয়ে হেনস্থা শিকার হয়েছেন কাঁঠালিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সহ একাধিক সদস্যরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ঐ অফিসার ইনচার্জের বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়,আইন মন্ত্রণালয়, পুলিশ হেডকোয়ার্টার, দুর্নীতি দমন কমিশন সহ কয়েকটি দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক ।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জানুয়ারি নিউজ প্রকাশের জন্য মহিসকান্দি গ্রামের ছগির বিশ্বাসের মারামারির ঘটনার বিষয় তথ্য জানতে চাইলে কাঁঠালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করেন সংবাদিক মো: রাজিব তালুকদার । প্রথমেই ওসি তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করে এবং তার সাথে দুর্ব্যবহার করেন। বিষয়টি কাঠালিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ বাদল হাওলাদার জানতে চাইলে তাকে অফিসে ডেকে বিভিন্নভাবে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে জেলে ঢুকিয়ে দেওয়ার ভয় দেখান। এ বিষয়ে রাজিব তালুকদার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ভুক্তভোগী মো:রাজিব তালুকদার বলেন, সংবাদ প্রকাশের জন্য ২৬ জানুয়ারি একটি মামলার বিষয় তথ্য জানতে কাঠালিয়া থানান অফিসার ইনচার্জ (ওসি)মো: নাসির উদ্দিন সরকারের কাছে ফোন করি, তখন তিনি তথ্য না দিয়ে আমার সাথে দুর্ব্যবহার করেন। সে বলেন এটা কি সাংবাদিকের কাজ, যে অভিযোগ করেছে তাকে পাঠাও এবং গালিগালাজ করেন, বিষয়টি প্রেসক্লাবের সভাপতি জানতে চাইলে তাকে থানায় ডেকে কু-রুচীপূর্ন ব্যাবহার করেন, এবং মামলা দেয়ার হুমকি দেন। এ বিষয়ে আমি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছি। অতি শিগ্রই আমি উচ্চ আদালতের দারস্ত হবো।গোপন সূত্রে জানা যায় আমার একই এলাকার মহিউদ্দিন তালুকদার পুত্র মো:টপি তালুকদারের সাথে বর্তমান কাঠালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন সরকার চাকরি করেছেন। কিন্তু কারণবশত টপি তালুকদার চাকরি হারিয়েছে। এখন তার ব্যাচমেট নাসির উদ্দিন সরকারকে দিয়ে হয়রানি করাচ্ছে টপি।

প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: বাদল হাওলাদার বলেন, মো:রাজিব তালুকদারের সাথে খারাপ আচরণের বিষয়ে আমি মুঠোফোনে জানতে চাইলে ৩০ জানুয়ারি আমাকে অফিসে ডেকে নিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। মামলা দেওয়ার ভয় দেখান থানার ভিতরে আটকে রেখে রাজিব তালুকদারকে হাজির করতে বলেন। ওসি আরো বলেন কালকে তোরে পাইনি কাল তোকে পেলে পারাইয়ে মেরে ফেলতাম, তোর সাংবাদিকতা বের করেদিবো, তোর সম্পাদককে এসে তোকে ছাড়িয়ে নিতে বল, তোর যায়যায়দিন পত্রিকার সম্পাদক ও সাংবাদিক রাজিবকে দেখিয়ে দিবো।অথবা এলাকায় কারো সাথে জগরা হলে সাথে তাদেরকে বাদী বানিয়ে তোদের বিরুদ্ধে মামলা এফআইআর করে নিয়ে জেল হাজতে পাঠিয়ে দিব পারলে ঠেকাস।

আরো জানা যায় এই ওসি ঝালকাঠি থাকা কালিন ঝালকাঠি জেলার ছাত্রলীগ নেতা নাদিম বলেন, আমাকে থানায় আটকে রেখে ভয়-ভীতি দেখিয়ে, চাঁদাবাজি মামলার দেয়ার কথা বলে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা নিয়েছেন ওসি নাসির। এ বিষয়ের বিচার চেয়ে আমি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে কাঠালিয়া থানার ওসি নাসির উদ্দিন সরকার বলেন, সকল অভিযোগ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।