ঢাকা শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

চট্টগ্রাম কালুঘাটের পেনমার্ক অ্যাপারেলস লিমিটেডের ফ্লোর ইনচার্জ সুমন ও ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ঝর্ণার ভট্টাচার্যের কারণে অতিষ্ঠ কর্মীরা”গার্মেন্টস শ্রমিকদের চাকুরী থেকে বের করে দেয়ার হুমকি (পর্ব -১)

সময়ের বাংলা ডেস্ক
প্রকাশিত: ১:২৪ পি.এম, ২৩ মার্চ ২০২৪
Link Copied!

চট্টগ্রাম কালুঘাট সিএমবি বাদামতলা মোড়ের থাই ফুড এর পাশে এশিয়ান গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান পেনমার্ক অ্যাপারেন্স লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ঝর্ণা ভট্টাচার্য ও প্রতিষ্ঠানের ফ্লোর ইনচার্জ মোঃ সুমন (এপিএম)দীর্ঘদিন যাবত ক্ষমতার অপব্যবহার, গার্মেন্টস শ্রমিকদের মারধর,অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ,চাকরি থেকে বের করে দেয়া, প্রাণ নাসের হুমকি দিয়ে আসছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গোপন সূত্রে জানা যায় সুমন হোসেন ও ঝর্ণা ভট্টাচার্য তারা প্রতিষ্ঠানের মালিক আব্দুস সালাম হোসেনের আস্থা ভজন লোক হওয়ার কারণে ক্ষমতার অপব্যবহার করে দীর্ঘদিন যাবত এই অনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।এ বিষয়ে যদি কেহ প্রতিবাদ করে তাহলে তাদেরকে অত্র গার্মেন্টস থেকে চাকুরী ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যেতে হয় তাদের ভয়ে। এমনকি সুমন ও ঝর্ণা ভট্টাচার্য ওই কর্মীদের মিথ্যা মামলা সহ অনৈতিক কার্যক্রম বদনাম উঠিয়ে নিরীহ গার্মেন্টস কর্মীদের হয়রানি করছি। পূর্বে পারভিন বেগম, শিমুল বেগম, আলেয়া বেগম, জোহরা বেগম সহ অধিকাংশ গার্মেন্টস কর্মীরা এই সুমন ও ঝর্ণা ভট্টাচার্যের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে এক পর্যায়ে তাদের কথাবার্তা না সোনার কারণে চাকুরী ছেড়ে যেতে হয়। এ ব্যাপারে চট্টগ্রামের সাতগাঁ থানায় একাধিকবার অভিযোগ করলেও কোন ফল পাইনি ভুক্তভোগীরা। তারা এ ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন দীর্ঘদিন যাবত। প্রতিষ্ঠানের মালিক আব্দুস সালাম তাকে এই বিষয়টি একাধিক কর্মীরা অবগত করিলে কোন প্রকারে ব্যবস্থা হচ্ছে না বলে জানান চাকুরী ছেড়ে দেয়া আশা অসংখ্য গার্মেন্টস শ্রমিক।অসহায় পেটের দায়ে চাকুরীর যত সুন্দর মেয়েরা যৌন নির্যাতন হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। বর্তমানে অসহায় শ্রমিক পেটের দায়ে নির্যাতনের শিকার হয়েও চাকরি করে যাচ্ছে।উক্ত বিষয়টিকে স্থানীয় জনপ্রশাসন ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশকে তদন্ত করে ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও ইনচার্জ সুমন এর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জোর অনুরোধ করছে। উল্লেখ্য অভিযোগের বিষয় প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর ঝর্ণা ভট্টাচার্যের ব্যবহারকৃত মুখে ফোনে ফোন দিয়ে অভিযোগের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন আমরা কেনই বা মেয়েদেরকে চাকরি থেকে বের করে দেয়ার হুমকি দিব, আর সুমন দীর্ঘ ২২ বছর যাবত এখানে চাকরি করছে তার কোন যৌন হয়রানির বিষয় অভিযোগ আমার কাছে নেই। তবে থানাতে লিখিত অভিযোগ অনেকেই দিয়েছিল পুলিশ তদন্ত করতে এসে বিষয়টি মিথ্যা পেয়েছে। আর যদি আপনাদের তথ্য জানতে ইচ্ছে করে তাহলে আমাদের কাছে আসেন। কেনইবা একটা মেয়ের কথা শুনে আমাদেরকে হয়রানি করছেন । প্রতিষ্ঠানের ফ্লোর ইনচার্জ (এ.পি এম) সুমন হোসেনের মোবাইল নাম্বারে ফোন দিয়ে তথ্য জানতে তিনি বলেন আমি কেন মেয়েদের নির্যাতন, যৌন হয়রানি, চাকুরি থেকে বের করে করবো,আর কি কারনে আমি ক্ষমতা খাটাবো এটা আমার জানা নেই।