ঢাকা শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়

রাজধানীর গোলাপবাগে ছিএনজি ড্রাইভার যাত্রীদের মালামাল নিয়ে পালানোর সময় আটক করেন টিআই আনন্দ

admin
প্রকাশিত: ৩:০৮ এ.এম, ১৫ জুন ২০২৪
Link Copied!

মো:রাজিব তালুকদারঃ

ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের ওয়ারী জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মো:আশরাফ ইমাম তাহার জোনের আওতাধীন সকল ট্রাফিক ইন্সপেক্টরদের সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নির্দেশনা দিয়েছেন পবিত্র ঈদুল আযহার সময় পরিবহন মালিক,ড্রাইভার সহ তাহাদের কোন লোকজন যাহাতে অতিরিক্ত টাকা ভাড়া না নিতে পারে সেদিকে লক্ষ্য দেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।দুর্ঘটনা ও যানজট মুক্ত রাখার জন্য প্রতিনিয়ত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সহ সকল সদস্যদের জনগণের সেবায় নিয়োজিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেছেন।

গত ১৪ জুন ২০২৪ রোজ শুক্রবার সকাল ৯ টার সময় মো.আলিফ আহমেদ (২২) ছাত্র,পিতা:মোজাম্মেল হক, মুরাদ নগর, কুমিল্লা।তিনি ঈদুল আযহার ছুটি তেয়ে গ্রামের বাড়িতে সকলের সাথে ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য যাচ্ছেন। তার ঢাকা বাসা থেকে সিএনজি যোগে সায়েদাবাদে রওনা হন। সিএনজি ড্রাইভার তাকে সায়েদাবাদে না দিয়ে গোলাপবাগের মেইন রাস্তার পাশে নেমে যাওয়ার জন্য বলেন। পথিমধ্যে সিএনজি ড্রাইভার এর সাথে এক পর্যায়ে মোঃ আলিম আহমেদের ঝগড়াঝাটি হয়। হঠাৎ করে সিএনজি ড্রাইভার আলিফ এর উপরে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে সিএনজি থেকে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়। এমনকি তার সাথে থাকা মালামাল নিয়ে পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন সিএনজি ড্রাইভার। হঠাৎ আলিফ সিএনজির দরজা ধরে অনেক দূরে যেতে থাকে ঝুলে। এই বিষয়টি পথচারীরা লক্ষ্য করে সিএনজি ড্রাইভারকে আটকে আলিফের মালামাল উদ্ধার করে দেন। একপর্যায়ে পথচারীরা গোলাপবাগ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আনন্দ কাছে নিয়ে আসেন।পরবর্তীতে টিআই আনন্দ এই ড্রাইভারকে আটক করে যাত্রাবাড়ী থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন। উল্লেখ্য বিষয় ট্রাফিকের ইন্সপেক্টর আনন্দ গণমাধ্যমকে জানান আমরা ঈদকে সামনে রেখে সর্ব ক্ষণিক জনসাধারণের জানমাল,দুর্ঘটনা থেকে রক্ষার করার জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের ওয়ারী জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মো:আশরাফ ইমাম স্যারের দিকনির্দেশনা অনুযায় কোন পরিবহনের মালিকরা বা সদস্যরা কোন ভাড়ায় সিন্ডিকেট করেছেন কি সেদিকে লক্ষ্য করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছি। এমনকি ঈদের সময় অনেক যানজট হওয়ার কারণে দুর্ঘটনা যাতে না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখছি। আমি আমার চাকরির শুরু থেকে একটাই লক্ষ্য যাহাতে সর্বখানেক আমি মানুষের সেবা করে যেতে পারি।