ঢাকা শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বাংলাঃ ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আরবীঃ ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি
  1. Lead 1
  2. Lead 2
  3. অপরাধ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আরো
  8. ইসলামিক
  9. কবিতা
  10. কৃষি সংবাদ
  11. খুলনা
  12. খেলাধুলা
  13. চট্টগ্রাম
  14. ছড়া
  15. জাতীয়
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রস্তাবিত বাজেট কর্মসৃজন ও সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে : আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ

অনলাইন ডেস্ক:
প্রকাশিত: ৩:২৬ এ.এম, ২৮ জুন ২০২৪
Link Copied!

সংসদ ভবন, ২৭ জুন, ২০২৪: সরকারি দলের সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ বলেছেন, ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি দারিদ্র বিমোচন, কর্মসৃজন, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি ও জলবায়ু পরিবর্তনের অভিঘাত মোকাবিলাসহ সরকারের অগ্রাধিকার খাতসমূহে প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ নিশ্চিত করবে।
তিনি আজ সংসদে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট সম্পর্কে সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন।
এ বাজেট একটি বাস্তবধর্মী ও দারিদ্র বিমোচনের সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করবে উল্লেখ করে আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত দেড় দশকে বাংলাদেশ একটি গতিময় ও দ্রুতবর্ধনশীল অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে বিশে^র দরবারে মর্যাদা লাভ করেছে। এই সময়ের মধ্যে মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি’র গড় প্রবৃদ্ধি ৬.৭ শতাংশের বেশি ছিল এবং ২০২২-২৩ অর্থবছর শেষে মাথা পিছু জাতীয় আয়ের পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৭৩ হাজার ৩৬০ টাকা।
তিনি আরো বলেন, দেশজ উৎপাদনের মানদন্ডে ২০২৩ সালের হিসাব অনুযায়ী বাংলাদেশ বিশে^র ৩৩তম বৃহৎ অর্থনীতি। একই সময়ে দারিদ্রের হার ১৮.৭ শতাংশে এবং অতি দারিদ্রের হার ৫.৬ শতাংশে নেমে এসেছে। মানুষের গড় আয়ু বর্তমানে ৭২.৮ বছর, নিরাপদ খাবার পানি পাচ্ছে ৯৮.৮ শতাংশ ও সেনিটারি ল্যাট্রিন ব্যবহার করছে ৯৭.৩২ শতাংশ মানুষ এবং শিশুমৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ২১ জনে ও মাতৃ মৃত্যুর হার প্রতি লাখে ১৬১ জনে নেমে এসেছে।
তিনি বলেন, রাজস্ব আদায়ে সকল সংস্কার কার্যক্রম বিবেচনায় আগামী ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে মোট ৫ লাখ ৪১ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয় প্রাক্কলন করা হয়েছে, যা জিডিপির ৯.৭ শতাংশ। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এর মাধ্যমে ৪ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা এবং অন্যান্য উৎস হতে ৬১ হাজার কোটি টাকা সংগ্রহ করার প্রস্তাব বাস্তব সম্মত। আগামী ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে বাজেটের আকার প্রাক্কলন করা হয়েছে ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা, যা জিডিপির ১৪.২ শতাংশ।
তিনি বলেন, পরিচালনসহ অন্যান্য খাতে মোট ৫ লাখ ৩২ হাজার কোটি টাকা এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে ২ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা যুক্তি সঙ্গত।
প্রস্তাবিত বাজেটে সামাজিক অবকাঠামো খাতে মোট ২ লাখ ৬ হাজার ৫৬৯ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে যা মোট বরাদ্দের ২৫.৯২ শতাংশ উল্লেখ করে হাসানাত আব্দুল্লাহ বলেন, ভৌত অবকাঠামো খাতে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২ লাখ ১৬ হাজার ১১১ কোটি টাকা, যা মোট বরাদ্দের ২৭.১২ শতাংশ। সাধারণ সেবা খাতে প্রস্তাব করা হয়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৭০১ কোটি টাকা, যা মোট বরাদ্দের ২১.১৭ শতাংশ। উল্লেখ্য, পশ্চিমা বিশে^ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে ২০২২ সাল থেকে সুদের হার ধাপে ধাপে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে বাজেটে সুদ পরিশোধ বাবদ ১ লাখ ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে যা মোট বরাদ্দের ১৪.২৪ শতাংশ। এতে করে ব্যাংকিং খাত বিকশিত হবে।
প্রাথমিক শিক্ষার স্তরে একটি শিশুর জ্ঞানের ভিত তৈরি হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতীয় উন্নয়নে প্রাথমিক শিক্ষার ভূমিকা অনস্বীকার্য। তাই টেকসই উন্নয়নের সহায়ক শক্তি হিসেবে আগামী ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষায় ৩৮ হাজার ৮১৯ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব নি:সন্দেহে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। চলতি অর্থ বছরে বরাদ্দ ছিল ৩৪ হাজার ৭২২ কোটি টাকা।
আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ বলেন, মেধাবী নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শিক্ষা খাতে আকাশচুম্বী সফলতা অর্জিত হয়েছে। মানব উন্নয়ন সূচকে আমরা ভারত ও পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে রয়েছি। এক্ষেত্রে আমরা ১৯২টি দেশের মধ্যে ১২৯তম অবস্থানে রয়েছি। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা খাতের সফলতাকে ধরে রাখতে আগামী ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে ৪৪ হাজার ১০৮ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে যা চলমান অর্থ বছরে ছিল ৪২ হাজার ৮৩৯ কোটি টাকা।
তিনি বাজেটে এমপিদের জন্য গাড়ি আমদানীতে ২৫ শতাংশ করারোপের প্রস্তাব প্রত্যাহার এবং বরিশাল মেডিকেল কলেজকে মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয় করা, ভোলা থেকে বরিশালে গ্যাস সরবরাহ করা, আগৈলঝরাতে অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপন করা এবং গৌরনদীকে জেলার মর্যাদা দেওয়ার দাবি জানান।